১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

 

টাঙ্গাইলে ওসির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট: ডিসেম্বর ১৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মনির হোসেন,টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর থানায় মামলা না নেওয়ায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ. ওহাব মিয়ার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন অবসর প্রাপ্ত পুলিশ পরিদর্শক (আরআই) মো. আক্তারুজ্জামান খান।

রবিবার ১১টায় টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আক্তারুজ্জামান অভিযোগ করেন, থানার ওসি ওয়াব মিয়া মামলা না নিয়ে উল্টো তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন।

লিখিত অভিযোগে তিনি জানান, ২৫ নভেম্বর রাতে আক্তারুজ্জামানের বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে। এ সময় তার ঘর থেকে ৩০ ভরি স্বর্ণ, নগদ এক লাখ টাকা ও একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়।

পরে তিনি ভূঞাপুর থানায় চুরির বিষয়টি অবহিত করলে থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) এজেডএম তৌফিক এলাহি ও এসআই ফাহিমসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ওইদিন রাতেই তিনি উপজেলার শিয়ালকোল গ্রামের রাজ্জাক খান ও তার ছেলে আবির খানের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

পরদিন ২৬ নভেম্বর বিকেলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ. ওহাব মিয়া ও এসআই ফাহিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং মামলা না করার জন্য তাকে (আক্তারুজ্জামান) চাপ প্রয়োগ করেন। পরে ওইদিনই সন্ধ্যায় পুনরায় তাকে থানায় ডেকে নিয়ে বিভিন্ন হুমকি দেন এবং মামলা করলে তার ক্ষতি হবে বলেও জানিয়ে দেন ওসি ওয়াব মিয়া।

এছাড়া ১০ ডিসেম্বর ওসি ওহাব মিয়ার নির্দেশে একটি শালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয় এবং তাকে এসআই মেহেদীর নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনী দিয়ে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টাও করা হয় বলেও সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি জানিয়েছেন।

পরবর্তীতে আক্তারুজ্জামান টাঙ্গাইল আদালতে আরজি পেশ করলে আদালত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মামলা নেওয়ার জন্য ওসিকে নির্দেশ দেন। পরে ১১ ডিসেম্বর মামলা রেকর্ড করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামি গ্রেফতার না করায় তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলে অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওহাব মিয়া নেক্সটনিউজকে  জানান, আক্তারুজ্জামান ও তার ভাইয়ের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। এটি মিমাংসার জন্য বিভিন্নভাবে বিভিন্ন সময় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। তবে মামলা না নেওয়ার বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তিনি শুনেছেন এ নিয়ে শালিশ বৈঠক হয়েছে। এছাড়া ওসি জানান, দুই পক্ষই আইনজীবী নিয়ে বসলে বিষয়টি মিমাংসা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া আক্তারুজ্জামানের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন তার প্রতিপক্ষরা।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network