৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

 

কালিহাতীতে স্কুলছাত্রী হত্যায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট: নভেম্বর ৭, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মনির হোসেন,টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গায় স্কুলছাত্রী সুমাইয়া হত্যার সাথে জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার(৭ নভেম্বর) দুপুরে এলেঙ্গা কলেজ মোড় এলাকায় মানববন্ধনে ৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুই সহস্রাধিক শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেয়।

এ সময় বক্তব্য রাখেন  কালিহাতী উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মোল্লা, সরকারি শামসুল হক কলেজের অধ্যক্ষ আনোয়ারুল কবীর, লুৎফর রহমান মতিন মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম, এলেঙ্গা বিএম কলেজের অধ্যক্ষ শফিকুল ইসলাম, এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুল করিম তালুকদার, জিতেন্দ্রবালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোবিন্দ চন্দ্র সাহা ও নিহত সুমাইয়ার চাচা ফিরোজ মিয়া প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, কিশোর গ্যাং ও বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে। ওরা সংঘবদ্ধ হয়ে বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত হচ্ছে। পুলিশ প্রশাসন ও অভিভাবকসহ সবাইকে ওদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। অপরাধী ও তাদের আশ্রয় প্রশ্রয়দাতাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান বক্তারা  ।

নিহত সুমাইয়ার চাচা বলেন,সুমাইয়ার মতো আর কোন মেয়েকে যেনো এ করুণ পরিণতির শিকার হতে না হয়। বিভিন্ন প্লেকার্ড হাতে ছাত্রীরা বলে, “আমরা নিরাপদ চলাচলের নিরাপত্তা চাই।”

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন,মামলাটি তদন্তাধীন অবস্থায় রয়েছে। তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মনির ছাড়া হত্যা কিংবা পরিকল্পনায় অন্য কেউ জড়িত থাকলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য গত ২৭ অক্টোবর এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া আক্তারের (১৫) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যার পর প্রেমিক মনির মিয়া (১৭) নিজেইে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে ঢাকায় চিৎিসাধীন অবস্থায় মনিরের মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। সুমাইয়া উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়নের পালিমা গ্রামের ফেরদৌস রহমানের মেয়ে। বখাটে মনির মিয়া মশাজান গ্রামের মেহের আলীর ছেলে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network