২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

 

অটো উল্টে গিয়ে কলেজ ছাত্রী সীমু মারাত্মক আহত

আপডেট: জুলাই ২৯, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নেক্সটনিউজ প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল : অটো উল্টে গিয়ে সীমু আক্তার নামে মেধাবী ছাত্রী মারাত্মক আহত হয়েছে। সীমু এলেঙ্গা সরকারি শামসুল হক কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী।  নানা বাড়ি থেকে অ্যাসাইনমেন্ট পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য কলেজের আসার পথে ২৯ জুলাই এ দূর্ঘটনা ঘটে। সীমু কালিহাতী উপজেলার বাংড়া ইউনিয়নের  ধুবলিয়া গ্রামের শমসের আলীর মেয়ে। দূর্ঘটনায় সীমুর বাম হাত  মারাত্মকভাবে  ভেঙে যায়। মাথায় ও বুকে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার শরীরে অস্ত্রপাচার করা হয়েছে। সে বর্তমানে টাঙ্গাইল ক্লিনিক এন্ড হাসপাতালের তৃতীয় তলায়  অধ্যাপক ডা : সুধাংশু কুমার  সিংহের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছে। দূর্ঘটনার খবর পেয়ে সরকারি সামসুল হক কলেজের অধ্যক্ষ আনোয়ারুল কবীরের নির্দেশে কলেজের একটি প্রতিনিধিদল সীমুকে দেখতে হাসপাতালে যান এবং তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

জানা যায়,  এলেঙ্গা শামসুল হক সরকারী কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী সীমু আক্তার সড়ক দূর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছে। অ্যাসাইনমেন্ট পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য কলেজে আসার পথে সে দূর্ঘটনায় পতিত হয়। এতে তার বাম হাতের উপরিভাগ ভেঙে চুর্ণবিচুর্ণ হয়ে যায়। তৎক্ষণাৎ তাকে ঘাটাইল আলোক ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে টাঙ্গাইল ক্লিনিক এন্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কনসালটেন্ট, হাড় জোড়া, বাত ব্যথা বিশেষজ্ঞ ও ট্রমা সার্জন ডা: সুধাংশু কুমার সিংহ সীমুর হাতে সফল অস্ত্রপাচার করেন।

সীমু কলেজের উদ্দেশ্যে নানার বাড়ি ঘাটাইল থানার মাইধার চালা থেকে অটোযোগে ফুলবাড়ী মানাযী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিকটে আসলে অটো উল্টো গিয়ে সীমুর উপরে পরে যায় । ঘটনাস্থলেই সীমুর বাম হাতটি চুর্ণবিচুর্ণ হয়ে যায়। মাথা-বুকে প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হয়। সীমুর শরীরে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়
মেধাবী ছাত্রী সীমু বর্তমানে টাঙ্গাইল ক্লিনিক এন্ড হাসপাতালের তিন তলায় ভিআইপি কেবিনে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
চিকিৎসায় নিয়োজিত ডা: সুধাংশু কুমার সিংহ সাংংবাদিকদের বলেছেন, অপারেশন সফল হয়েছে। সীমুকে এখনো রক্ত দেওয়া হচ্ছে। তার আরো লাগবে বলে ডাক্তার জানিয়েছেন। সুমুর রক্তের গ্রুপ এবি পজিটি। সীমুর মা রীনা আক্তার তার মেয়ের জন্য সকলের কাছেে দোয়া চেয়েছেন। সীমুুকে হাসপাতালে দেখতে আসা কলেজের শিক্ষকদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন মেধাবী ছাত্রী সীমুর মা রীনা আক্তার।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network