৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

 

কালিহাতীতে কোরবানীর গরু “নয়া দামান” আলোচনায়

আপডেট: জুলাই ১২, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সোলায়মন খান,কালিহাতী (টাঙ্গাইল): এবার টাঙ্গাইলের কালিহাতীর কোরবানীর গরু ” নয়া  দামান ” আলোোচনার শীর্ষে। নতুন জামাইয়ের মত আদর-যত্ন করে লালন-পালন করা হয়েছে বলে খামাড়ি এর নাম রেখেছে  “নয়া দামান”। জেলার কালিহাতী উপজেলার  আমজানি-বাদামজানি গ্রামে মফিজ শিকদারের কোরবানির ষাঁড় গরু “নয়া দামান” রসিক হাসি দিয়ে মানুষের মন জয় করছে।গরুটিকে হাসতে বললে হাসে। এই জন্যই গরুটিকে  রসিক হাসি নামেও ডাকা হয় । নয়া দামান নামের এই কোরবানির ষাড় গরুটি উপজেলার সবচেয়ে বড় গরু বলে ধারনা করছেন খামাড়ি মফিজ শিকদার। দাম হাঁকা হচ্ছে ছয় লাখ টাকা।

গরুটির গঠন আকর্ষণীয়। নতুন জামাইয়ের মতন লালন-পালন হয়েছে  নয়া দামান। নয়া দামান অর্থ নতুন জামাই।  গরুটির বয়স ৩ বছর, ওজন ২১ মন, উচ্চতা ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, দৈর্ঘ্য ৬ ফিট ৩ ইঞ্চি, বুকের মাপ বা প্রস্থ ৮ ফিট। গরুটি  শাহিওয়াল ও ফ্রিজিয়ান ক্রস জাতের। সাদাকালো মিশ্রিত রঙ্গের। গরুটিকে ঘাস, ভুষি, খড়, ছোলা খাওয়ানো হয়। এখন পর্যন্ত কোন প্রকার ভিটামিন খাওয়ানো হয়নি।  কোন প্রকার রোগ বালাইও দেখা দেয়নি। খামাড়ি  মফিজ সিকদার জানান, গরুটির মূল্য চাওয়া হচ্ছে ৬ লাখ টাকা। নয়া দামানকে হাটে তোলা হবে না। অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে খামাড়ি মফিজ । খামাড়ির সাথে  যোগাযোগের নম্বর  ০১৭২৬৪৫৯৩৮১। হাসতে বললে হাসে এবং দাঁত দেখায় নয়া দামান  । নয়া দামান সম্পর্কে  কালিহাতী উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শহীদুল্লাহ সাংবাদিকদের  জানান, গরুটি বৈজ্ঞানিক গবেষণা পদ্ধতিতে সর্বক্ষণ প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর নির্দেশনা মোতাবেক  লালন পালন করা হয়েছে। গরুটি কালিহাতী উপজেলার মধ্যে বর্তমানে সবচেয়ে বড় গরু।  অনলাইনের মাধ্যমে গরুটি বিক্রির জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে ।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network