২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে আনোয়ার মেম্বার

আপডেট: জুন ২০, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

 

নেক্সটনিউজ প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল : আর অপারেশন করা হলোনা আনোয়ার হোসেন মেম্বারের। ২০ জুন সকালে সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন তিনি। টাঙ্গাইল সদর উপজেলার মগড়া ইউনিয়নের বাহিরশিমুল গ্রামের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ছিলেন তিনি। তিনি ঐ ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি বৃদ্ধা মা, স্ত্রী, দুই কন্যা ও এক পুত্র সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী,ভক্ত-স্বজন রেখে গেছেন। তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬০ বছর।
অত্যন্ত জনপ্রিয় গনমুখী নেতা আনোয়ার হোসেন গত ৭ জুন হঠাৎ করে ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে টাঙ্গাইল জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ঢাকার নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সর্বশেষ আজ ২০ জুন সকাল নয়টায় তাঁর অপারেশন করার সময় নির্ধারণ করা হয়েছিলো। কিন্তু সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মগড়াবাসীর প্রিয় মানুষ আনোয়ার হোসেন অপারেশনের সুযোগ না দিয়েই চলে গেলেন পরপারে। আর তাঁর অপারেশন করা হলোনা। আনোয়ার হোসেনের ছোট ভাই অধ্যক্ষ তোফাজ্জল হোসেনের মাধ্যমে তাঁর মৃত্যু সংবাদটি এলাকায় পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে শোকের ছায়া নেমে আসে তাঁর পরিবার ও এলাকাবাসীর মাঝে। কান্নার রোল পড়ে যায় তাঁর গ্রামে। আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার নন্দিত পুরুষ ছিলেন আনোয়ার হোসেন। গণমানুষের সেবায় সব সময় ব্যস্ত থাকতেন। কারোর সাথে রাগ না করে নিচু ও ঠান্ডা  স্বরে কথা বলতেন  তিনি।
অত্যন্ত বিনয়ী ও নম্র-ভদ্র আচরণের অধিকারী হওয়ায় পুরো ইউনিয়নবাসীর প্রানের মানুষে পরিনত হয়েছিলেন তিনি।

সততার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন এই ইউপি মেম্বার। পরিবারের আয় মেটাতে তিনি ইউনিয়ন পরিষদের কোনো অবৈধ আয়ের দিকে তাকাতেন না। দলিল লেখকের কাজ করে পারিবারিক ব্যয় নির্বাহ করতেন।
আসরের নামাজের পর তাঁর নিজ গ্রামে জানাযা নামাজ শেষে সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইল সদর আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি ও মগড়া ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বুলবুল হাসান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network