২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

 

ডোমারের সোনারায় ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

আপডেট: আগস্ট ১৩, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

মোঃ নাঈম শাহ্, নীলফামারী থেকে : নীলফামারীর ডোমারের সোনারায় ইউনিয়নে ছেড়া পতাকা টাঙ্গিয়ে চলছে ভূমি অফিসের কার্যক্রম সেই সাথে সোনারায় ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সহকারি ভূমি কর্মকর্তা গণেশ চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) সারেজমিনে গিয়ে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, এই ভূমি অফিসের তহশিলদার গণেশ চন্দ্র রায় টাকা ছাড়া কোনো কাজই করে না। জমির খাজনা খারিজের জন্য যার কাছে যত টাকা পায় তত টাকার বিনিময়ে জমি খারিজ করে দেয়।

ছেড়া পতাকার বিষয়ে স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এই তহশিলদার নিজের খাম খেয়ালি মত অফিস চালায় কাউকে তোয়াক্কা করে না। বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার বেহাল অবস্থা মুজিববর্ষ উপলক্ষেও সেদিকে পতাকার দিকে নজর দেয় না তহশিলদার। আমরা তাকে নতুন পতাকা লাগানোর কথা বললে তিনি বলেন আমার অফিস আমি বুঝবো কোন জিনিস কেমন থাকবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যক্তি জানায়, সরকারি খরচ ডিসিআর করতে প্রয়োজন ১১৫০ টাকা কিন্তু তহশিলদার গণেশ এই ডিসিআর টাকা আদায়ে মানুষকে বিভিন্নভাবে ভুলভাল বুঝিয়ে আট থেকে দশ হাজার টাকা আদায় করেন। জমি খারিজ করতে হবে আর কোনো উপায় না দেখে এই অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের স্বীকার হয়েছেন ইউনিয়নের হাজির হাট মোড়ের উমেদ আলী, বড়গাছার হাছান আলীর ছেলে , চওড়া বড়গাছার মজিদের বড় ভাই মনছুর আলী সহ আরো অনেক ভুক্তভোগী।

ছেড়া পতাকা ও অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের বিষয়ে সোনারায় ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কর্মকর্তা গণেশ চন্দ্র রায়ের সাথে ফোনে জিজ্ঞেস করলে তিনি ফোন কেটে দেন।

এ বিষয়ে ডোমার উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মনোয়ার হোসেন বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নেক্সটনিউজ/জেআলম
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network