১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ৩ রোজাদার মহিলা মামুন কর্তৃক সন্ত্রাসী হামলার শিকার। থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের

আপডেট: এপ্রিল ২৭, ২০২০

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সাইফুল ইসলাম, কুষ্টিয়া থেকে : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় সামান্য কথাকাটির জেরে মমতাজ বেগম নামে এক বৃদ্ধাসহ ৪ রোজাদার মহিলা মামুন কর্তৃক সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন বলে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের দায়ের করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগ এবং এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাহিরচর মসলেমপুর গ্রামের রফিকুল সরদার এর পুত্র মামুনের কলা বাগানের পাশে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে মমতাজ নামের এক বৃদ্ধ মহিলাকে মামুন তার হাতে থাকা লাঠি দিয়ে নির্মম ভাবে পিটিয়ে আহত করে। এ সময় মমতাজ বেগমকে ঠেকাতে গেলে মজিরন এবং মনিরা নামে মহিলারাও মামুনের হাত থেকে রেহাই পায়নি। মামুনের কলা বাগানের পাশে মমতাজ বেগমের ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে মামুন মমতাজকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করলে মহিলা প্রতিবাদ করে। এতে মামুন ক্ষিপ্ত হয়ে মমতাজ বেগমকে বেদম মারধর করে। এ নিয়ে মামুনের নামে ভেড়ামারা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন মমতাজ বেগমের ছেলে আমিন। তিনি তাঁর বৃদ্ধ মাকে মারধরের বিচার চান।
আশরাফ নামে এক প্রতিবেশী বলেন, মামুন মা বয়সি মহিলাকে মারধর করে মোটেই ঠিক করেনি। মামুন মাঝে মধ্যে এমন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অনেকের গায়েও ইতিপূর্বে হাত তুলেছে। ভয়ে কেউ কিছু বলার সাহস করে না বলে দিন দিন তার অপরাধ বেড়েই চলেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন, মামুন পূর্বে ৩৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র চাকুরী করতো। চুরি করার অপরাধে চাকরি চলে যায়। তারপর থেকে বালির ঘাটে নীরব চাঁদাবাজিসহ অসহায় গরীবদের উপর প্রায় এমন ঘটনা ঘটিয়ে থাকে।
এলাকাবাসী মামুন এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করেছেন। ভেড়ামারা থানার পরিদর্শক(ওসি তদন্ত) মোঃ জহুরুল অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয় স্বীকার করে জানান, ঘটনার প্রাথমিক তদন্তের জন্য এস আই কামরুলকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network