২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

মধুপুরে খামারিদের প্রণোদনার অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিবাদে বানববন্ধন

আপডেট: জুলাই ১৮, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নেক্সটনিউজ প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল :  প্রাণিসম্পদ ও ডেইরী উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় টাঙ্গাইলের মধুপুরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত খামারীদের প্রণোদনা বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত গবাদী পশু খামারী ও এলাকাবাসী।

রোববার(১৮জুলাই) সকালে মধুপুর প্রাণী সম্পদ অফিস চত্বরে ক্ষতিগ্রস্থ বঞ্চিত প্রান্তিক খামারীদের উদ্যোগে বানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন, মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান
সাদিকুল ইসলাম সাদিক,মধুপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ আহমেদ নাসির,টাঙ্গাইল জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেন আকন্দ,মধুপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইজতেমা ইশতিয়াক আহমেদ সজীব,মধুপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখার যুগ্মসাধারণ সম্পাদক শেখ মোঃ বাবু,মির্জাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাফর আহমেদ,মির্জাপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আলাওল কবির, সাধারন সম্পাদক আলমগীর হোসেন খান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, যে সমস্ত ক্ষতিগ্রস্ত খামারি মাঠকর্মীদের প্রনোদোনার টাকার জন্য ঘুষ দিতে রাজি হয়েছে শুধু তাদেরকেই তালিকায় আনা হয়েছে, তাদেরকে শুধু প্রনোদনা দেওয়া হয়েছে। অনিয়ম ও দুর্নীতির সুষ্ট তদন্ত করে প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাদের বিচারের দাবী জানান তারা

করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত খামারীদের প্রণোদনা বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির সক্রান্ত একটি প্রতিবেদন বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হলে উপজেলার প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ হারুন রশিদের যোগসাজসে ঘুষের বিনিময়ে গবাদি পশু নেই এমন ব্যক্তিকেও প্রনোদনার টাকা দেওয়ার অভিযোগ তুলে ১১ জুলাই মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরারব একটি দরখাস্ত দিয়েছেন টাঙ্গাইল জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেন আকন্দ ।

জানা যায়, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের আওতায় মহামারি করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত গরু ও মুরগী খামারিদের প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি প্রকল্পের আওতায় খামারিদের প্রণোদনা ঘুষের বিনিময়ে এই তালিকায় একই পরিবারের দুই থেকে তিনজনের নামে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এমনকি অনিয়ম করে যাদের গবাদি পশু নেই তাদেরকেও মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা দেওয়া হচ্ছে। মাঠকর্মীদের ঘুষ দিলে মিলছে প্রণোদনা। টাকা না পেয়ে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত খামারি হতাশা প্রকাশ করেছে। সরকারি প্রণোদনার টাকায় অনিয়মকারী উপজেলা কর্মকর্তাসহ মাঠকর্মী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের  দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে প্রণোদনা না পাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত খামারিরা।

টাঙ্গাইল জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেন আকন্দ জানান, বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় টেলিভিশনে প্রণোদনার টাকা বিতরণে অনিয়ম হওয়ার এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করেছেন।

এ বিষয়ে মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, উপজলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষের বিনিময়ে প্রণোদনার টাকা দেওয়ার বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network