১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

 

কিশোরগঞ্জে সাংবাদিককে কুপিয়ে জখম

আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০২১

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নেক্সটনিউজ প্রতিবেদক, কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে নিজ বসতঘরে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন দৈনিক মানবজমিনের উপজেলা প্রতিনিধি হোসেন মাহবুব কামাল (৫২)। বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) রাতে উপজেলার কৈলাগ গ্রামের বসতবাড়িতে এলাকার চিহ্ণিত একদল সন্ত্রাসী এই হামলা চালায়।

এ সময় সশস্ত্র হামলাকারীরা দা, লোহার রড ও বল্লম দিয়ে কুপিয়ে ও আঘাত করে হোসেন মাহবুব কামাল ও তার স্ত্রী নূরজাহান আক্তার (৩৫) কে গুরুতর আহত করে। রাতেই তাঁদের বাজিতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামাল বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ জারু মিয়া (৩৫) ও মিঠু মিয়া (২৪) নামে দুই সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী জারু মিয়া, মিঠু মিয়া, কালা মিয়া (৬০) ও আরো ৪-৫ জন সন্ত্রাসীর নজর পড়ে সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামালের বসতবাড়িরজায়গায়।

ইতোমধ্যে তাঁর পৌনে ১৫ শতাংশ বসতবাড়ির জায়গার মধ্যে সাড়ে ৮ শতাংশ জায়গা সন্ত্রাসী গ্রুপটি জবরদখল করে নিয়েছে। বাকি জায়গাটুকুও জবরদখল করার উদ্দেশ্যে দীর্ঘদিন ধরে তারা পাঁয়তারা করে আসছিল।

এর অংশ হিসেবে গত ১ জানুয়ারি রাতে সন্ত্রাসী গ্রুপটি হোসেন মাহবুব কামালকে জায়গা ছেড়ে না দিলে হত্যার হুমকি দেয়।

এর জের ধরে সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামালের গরুর ফার্মের ব্যবহৃত নলকূপ ও মোটরের পাইপ তারা নিয়ে যায়।

পানির অভাবে সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামালের গরুর ফার্মের একটি বিদেশি গরু ১১ দিন চরম কষ্টে থেকে মারা যায়। আরো ৫টি গরুর অবস্থা সংকটাপন্ন হলে গত ১২ জানুয়ারি গ্রামের মাতব্বরদের কথায় পাইপটি ঠিক করতে গেলে মেকানিকসহ সাংবাদিক কামালকে প্রাণে মারতে তেড়ে আসে।

এ সময় সন্ত্রাসী গ্রুপটি প্রকাশ্যে যে কোনো সময় কামালকে খুন করে বস্তায় ভরে ফেলে দেয়ার ঘোষণা দেয়। এ বিষয়ে ওইদিনই (১২ জানুয়ারি) রাতে সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামাল বাজিতপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরদিন ১৩ জানুয়ারি এসআই মাজাহারুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পায়।

তখন এলাকার কয়েকজন মাতব্বর বিষয়টি সুরাহা করে দেয়ার দায়িত্ব নিলেও সন্ত্রাসী গ্রুপটি তাতে পাত্তা না দিয়ে জায়গা জবরদখল করার জন্য তাদের অপতৎপরতা চালিয়ে যায়।

এ পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামালের ঘরে অতর্কিতে দা, লোহার রড ও বল্লমসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সন্ত্রাসী গ্রুপটি হামলা চালায়।

সন্ত্রাসীরা তাঁর মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে ও আঘাত করে গুরুতর আহত করে। এ সময় কামালের স্ত্রী নূরজাহান আক্তারের ওপর চড়াও হয়ে তাকেও আহত করে সশস্ত্র হামলাকারীরা।

স্বামী-স্ত্রীকে আহত করে সন্ত্রাসী গ্রুপটি ঘরে ফেলে যাওয়ার পর এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে বাজিতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ঘটনার পর সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামাল বাদী হয়ে ৮জনের নামোল্লেখ ও অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে বাজিতপুর থানায় মামলা দায়েরের পর রাতেই পুলিশ জারু মিয়া ও মিঠু মিয়া নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে বাজিতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মাজহারুল ইসলাম জানান, সাংবাদিক হোসেন মাহবুব কামালের ওপর হামলা ও তাকে আহত করার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলার দুই আসামিকে এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network